> !@!@!@!! চট্টগ্রামে ঘাঁটি স্থাপন করবে মার্কিন সপ্তম নৌবহর!!!!!

!@!@!@!! চট্টগ্রামে ঘাঁটি স্থাপন করবে মার্কিন সপ্তম নৌবহর!!!!!

Posted on Saturday, June 2, 2012 | No Comments


চট্টগ্রাম থেকে নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত নৌঘাটি চায় যুক্তরাষ্ট্র কিন্তু তা জানতো না বাংলাদেশের মানুষম বাংলাদেশের মিডিয়া, খবরটা আগে জানলো ভারতের মানুষ আর ভারতের মিডিয়া।

বিডিয়ার বিদ্রোহে মেজর সাকিল মারা গেছেন এই খবরটা জানতো না বাংলা্দেশের মানুষ কিংবা মিডিয়া, অথচ ভারতের মিডিয়া বিডিয়ার বিদ্রোহো শুরু হওয়ার আগ থেকেই সংবাদ প্রচার করতে থাকে মারা গেছেন মেজর সাকিল, বিডিয়ারে বিদ্রোহো।

তবে কি ভারতই নেপথ্যে থেকে আওয়ামিলীগ সরকারের সহযোগিতায় বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এসমস্ত অপরাধগুলোর সমন্নয় করছে যার ফলে আমাদের মিডিয়া এবং জনগনের হাতে সংবাদ আসার আগেই তারা নিশ্চিতভাবে প্রচার করে আমাদের নেতিবাচক দিকগুলো??



আমেরিকার ৭ম নৌবহর চট্টগ্রামে ঘাঁটি গাঁড়ছে বলে দাবি করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া (অনলাইন)। বৃহস্পতিবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার একটি এক্সক্লুসিভ ভিডিও চিত্রে এই দাবি করা হয়। বাংলাদেশে আমেরিকান রণতরীর ঘাঁটি গাড়ার পেছনে কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে - আমেরিকার চীনকে চাপের উপর রাখার ইচ্ছা। ভিডিও ফুটেজে বলা হয়, গত মাসে আমেরিকান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের বাংলাদেশ সফরের সময় উভয় পক্ষ এই বিষয়ে কৌশলগত বিভিন্ন কথাবার্তা সেরে রেখেছিল। কারণ দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের নৌঘাঁটি গঠন সংক্রান্ত খবরে পেন্টাগণের ওই অঞ্চলে কর্তৃত্ব হারানোর উদ্বেগ বাড়ছে। তাই তারা চীনকে রুখতে কাছাকাছি অঞ্চলে নিজেদের সামরিক শক্তি মজুদ রাখতে চায়। এছাড়া আফগানিস্তান থেকে আমেরিকান সেনা প্রত্যাহার শুরু হলে তারা দক্ষিণ এশিয়ায় কর্তৃত্ব ধরে রাখতে চাইবে। তাই এই শক্তি মজুদের জন্য বঙ্গোপসাগরই উপযুক্ত স্থান।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, যদিও হিলারির সফরের সময় ৭ম নৌবহর বা সামরিক কোনো বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে আলোচনার বিষয়টি অস্বীকার করেছে আমেরিকান প্রশাসন, তবে এ বিষয়ে তারা পরিষ্কার করে কিছু জানায়ওনি। এমনকি বাংলাদেশ সরকারও এই বিষয়টিতে মুখ বন্ধ রেখেছে।

এছাড়া এই বিষয়ে একটি চীনা মিলিটারি ওয়েবসাইট জানায়, টাইমস অব ইন্ডিয়ার রিপোর্টটিতে বাংলাদেশে হিলারির সফরকে যতটা না বন্ধুত্বের তার চেয়ে বেশি কৌশলগত বলে ইঙ্গিত করা হয়েছে। কারণ চট্টগ্রামে আমেরিকান নৌবহর ঘাঁটি গাঁড়লে ভারতও ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে তাদের ধারণা। কারণ তখন ভারতের সকল নিরাপত্তা স্থাপনা আমেরিকার নজরদারির আওতায় থাকবে। তাছাড়া নতুন এই ঘটনায় ভারতও বিস্মিত হয়েছে, কারণ চট্টগ্রামের প্রতি ভারতেরও কৌশলগত আগ্রহ রয়েছে বলে ওয়েবসাইটটি দাবি করে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার রিপোর্ট সত্য হলে তা হবে গত ৪১ বছরের মধ্যে বঙ্গোপসাগরে আমেরিকার নৌবহরের প্রথম প্রবেশ। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় পাকিস্তানকে সাহায্য করার জন্য আমেরিকান ৭ম নৌবহর বঙ্গোপসাগরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছিল। তখন সোভিয়েত ইউনিয়নের পাল্টা হুমকির মুখে তা ফিরে যেতে বাধ্য হয়।

Leave a Reply

hosting-earnmoney.blogspot.com. Powered by Blogger.

Sample Text

ওয়েবসাইট এর পোস্ট গুলো ভাল লাগলে ওয়েবসাইটটিতে জয়েন করতে ভুলবেন না।

Sample text

Social Icons

Labels

Categories

Recent Comments

Protected by Copyscape Web Copyright Checker

Popular Posts

Advertisement (468 x 60px )

Labels

Search

Popular Posts

Followers

PageRank Display Button

Featured Posts